এই পাঁচটি খাবার খাবেন না। চেহারা নষ্ট হবে। যৌবন ধ্বংস হবে-2021

এই পাঁচটি খাবার খাবেন না। চেহারা নষ্ট হবে। যৌবন ধ্বংস হবে-2021আমাদের যৌবনের স্থায়িত্ব এবং সৌন্দর্যের অনেকটাই নির্ভর করে আমাদের খাওয়ার রুটিনের উপর। অন্য কথায়, আপনি স্বাস্থ্যকর খাবার খাচ্ছেন কিনা তা নির্ভর করে আমাদের ত্বক আসলে কতটা সুন্দর হবে তার উপর। আপনি বাইরে থেকে যতই সৌন্দর্য এবং মেকআপ করুন না কেন, আপনি যদি ভিতর থেকে ফ্রেশ না হন তবে আপনি তার সৌন্দর্য হারাবেন দুই দিনেই। কিছু খাবার আছে যা আপনার সৌন্দর্য ও যৌবন নষ্ট করার জন্য যথেষ্ট। এই খাবারগুলো যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলার চেষ্টা করা উচিত। আসুন জেনে নেই সেই খাবারগুলো কী কী।

আপনারা আজকে যে সব বিষয়ে জানতে পারবেন-

লাল মাংস খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

মিষ্টি খাবার এবং কোমল পানীয় খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

লবণ খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

চা-কফি খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

 ধূমপান খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

 ধূমপান খাওয়ার উপকারিতা এবং অপকারিতা 

  • লাল মাংস: অতিরিক্ত মাংস খেলে শরীরে ক্ষতিকারক পদার্থের মাত্রা বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পরিমাণ কমতে শুরু করে। এটি স্বাভাবিকভাবেই ত্বক এবং শরীরের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই ত্বক সুন্দর রাখতে এবং তারুণ্য ধরে রাখতে যতটা সম্ভব কম লাল মাংস খাওয়ার চেষ্টা করুন।

  • মিষ্টি খাবার এবং কোমল পানীয়: মিষ্টি খাবারের অত্যধিক ব্যবহার সারা শরীরে প্রদাহ সৃষ্টি করে, যা নির্দিষ্ট এনজাইমের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। এই এনজাইমগুলি ধীরে ধীরে ত্বকের কোলাজেন এবং ইলাস্টিনকে ভেঙে দেয়। ফলে ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে শুরু করে।

 

  • অতিরিক্ত লবণ: শরীরে লবণের পরিমাণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পানির পরিমাণও বাড়ে। আর এমনটা হলে মুখসহ সারা শরীর ফুলে যেতে থাকে। ফলে ত্বক তার স্বাভাবিক সৌন্দর্য হারায়।

 

  • অতিরিক্ত চা-কফি: এই ধরনের পানীয়তে খুব বেশি মাত্রায় ক্যাফেইন থাকে, যা কর্টিসল হরমোনের ক্ষরণ বাড়ায়। এই হরমোনের মাত্রা বাড়ার সাথে সাথে ত্বকে বয়সের ছাপও বাড়ে। একই সময়ে, ত্বক শুষ্ক হয়ে যায় এবং বলিরেখা দেখা দেয় এবং এটি চোখের নীচে কালো দাগের জন্য দায়ী।

 

  •  ধূমপান: ধূমপান এবং অ্যালকোহল পান করার পরে, ত্বকে জলের স্তর কমতে শুরু করে। ফলে ত্বক ধীরে ধীরে শুষ্ক হয়ে যায়। এবং যত বেশি ঘটবে, লাইনটি তত পরিষ্কার হবে। সেই সঙ্গে চর্মরোগ হওয়ার আশঙ্কাও বেড়ে যায়।

 

  • প্রক্রিয়াজাত খাবার: প্রক্রিয়াজাত খাবার বেশি খেলে শরীরে গ্লাইসেমিক লোড বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে লবণের মাত্রাও বাড়তে থাকে। ফলে এটি ধীরে ধীরে তার সৌন্দর্য ও তেজ হারাতে শুরু করে।…

 

  • ভাজা খাবার: যে কোনো ভাজা খাবার খেতে খুবই সুস্বাদু। কিন্তু এই ভাজা খাবারগুলো খাওয়ার ফলে আমাদের শরীরে হাইড্রোজেনেটেড ফ্যাটের পরিমাণ বেড়ে যায় যা শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। সেই ভিটামিন ই এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের মাত্রা কমতে শুরু করে। ফলে ফ্রি র‌্যাডিক্যালের মাত্রা বাড়তে থাকে এবং এর ফলে ত্বক তার সৌন্দর্য হারাতে থাকে এবং আমাদের যৌবন নষ্ট হতে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.