করোনায় নার্গিসের সকল বান্ধবীর বিয়ে শেষ!

করোনায় নার্গিসের সকল বান্ধবীর বিয়ে শেষ!

করোনা মহামারির কারণে টানা ১৮ মাস স্কুল-কলেজসহ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর অবশেষে ১২ সেপ্টেম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার নির্দেশ দেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়। করোনা মহামারী বিশ্বে ব্যাপক আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে এবং পুরোপুরি নির্মূল হয়নি। বিশ্বজুড়ে করোনার প্রাদুর্ভাব লক্ষাধিক মানুষকে হত্যা করেছে।

নার্গিস কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নের সরদোব উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। এখন কথা বলার মতো তার কোনো সঙ্গী নেই। স্কুলের সব ছাত্র-ছাত্রী কিন্তু নার্গিস ছাড়া আর কোনও মহিলা ছাত্রী স্কুলে আসেনি। ছাত্ররা বসে আছে একপাশে আর নার্গিস একা।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফজলে রহমান জানান, তার বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ২২৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৬৩ জন ছাত্রী। তাদের মধ্যে প্রায় 60 শতাংশ মহিলা ছাত্র এবং 80 শতাংশ পুরুষ ছাত্র। বাকিদের খোঁজ নিতে শিক্ষকদের একটি দল গঠন করা হয়েছে।

প্রধান বলেন, তারা একটি দল গঠন করেছেন এবং শিক্ষার্থীরা স্কুলে না আসার কারণ জানতে চান। তথ্য অনুযায়ী, স্কুলে না আসা শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৭ জনের বিয়ে হয়েছে। বেশির ভাগই বাল্যবিবাহে বিয়ে হয়েছে। অষ্টম শ্রেণীতে পড়ার সময় কর্ণের মহামারীর কারণে স্কুল বন্ধ হয়ে যায়।
বাংলাদেশের হাজার হাজার শিক্ষার্থী সহপাঠী হারিয়েছে। করোনা মহামারির কারণে অসংখ্য শিক্ষার্থীর বিয়ে হয়েছে।

দীর্ঘ এ সময় বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় মানুষের মধ্যে এক ধরনের হতাশা বিরাজ করছিল। অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের নিয়ে হতাশায় ভুগছিলেন। সাধারণত দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে-মেয়েদের অভিভাবকরা অর্থনৈতিক সমস্যা নিয়ে চিন্তিত থাকেন। দরিদ্র পরিবারে কোনো মেয়ে থাকলে এবং ভালো স্বামী পেলে তার বয়স না দেখে বিয়ে করে।করোনা মহামারির কারণে অনেক তরুণ-তরুণী বিষণ্ণতায় ভুগছে। বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকায় অনেক শিশু পাবজি ফ্রি ফায়ারসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে আসক্ত হয়ে পড়েছে।

এই মুহুর্তে সরকারের উচিত সকল শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি সুষ্ঠু পরিকল্পনা করা যাতে তারা এই সকল অনৈতিক কর্মকান্ড থেকে বেরিয়ে আসতে পারে। স্কুলের মেয়েদের ভাবমূর্তি এমন থাকলে ভবিষ্যৎ সংকটে পড়বে। সচেতনতার অভাব আর কুসংস্কারে ভরে যাবে সমাজ।

নার্গিস এখন খুব একা বোধ করে যে তার সব সহপাঠী বিবাহিত।

তিনি হতবাক যে তার সবচেয়ে কাছের বান্ধবী বিয়ে করেছে। সে এখন তার বান্ধবীদের সাথে ক্লাসও করতে পারে না। সে তার গার্লফ্রেন্ডকে তার কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার কথা ভাবতেও পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.