কেন গর্ভকালে ক্ষুধা কমে যায়-২০২১

কেন  গর্ভকালে ক্ষুধা কমে যায়-২০২১

মা হওয়া একজন নারীর জীবনের সবচেয়ে সুখের অনুভূতি। যাইহোক, একজন মহিলা গর্ভবতী হওয়ার সময় থেকে তার একটি সন্তানের জন্ম দেওয়ার সময়টি খুব জটিল। এই সময় বিভিন্ন শারীরিক জটিলতা দেখা দিতে পারে।

গর্ভাবস্থায় মহিলারা যে সমস্যার মুখোমুখি হন তার মধ্যে একটি হল ক্ষুধা হ্রাস বা ক্ষুধা না পাওয়া। অনেক মহিলা আশ্চর্য হন কেন এটি ঘটে। তাহলে এই সমস্যার সমাধানের কারণ এবং কিছু টিপস জেনে নিন:

শারীরিক পরিবর্তন
গর্ভাবস্থায় মহিলাদের শরীরে বিভিন্ন পরিবর্তন হয়। শারীরিক পরিবর্তনের পাশাপাশি হরমোনের অনেক পরিবর্তন হয়। এই সময় লেপটিন নামক হরমোনের অনেক বৈচিত্র এবং হিউম্যান কোরিওনিক গোনাডোট্রপিন (এইচসিজি) নামক হরমোনের ক্ষুধা লেভেল কমানোর জন্য দায়ী। উপরন্তু, এই হরমোনগুলি গর্ভাবস্থার প্রথম মাসগুলিতে বমি বমি ভাব সৃষ্টি করে।

মানসিক চাপ
গর্ভাবস্থায় মহিলাদের অনেক চাপের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এ সময় নারীদের খাবারের প্রতি বিতৃষ্ণা কাজ করে মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তার কারণে। বিষণ্ণতাও ক্ষুধা হ্রাসের অন্যতম কারণ হিসেবে বিবেচিত হয়।

এমন সমস্যা দেখা দিলেও খাবার এড়িয়ে যাওয়া আপনার জন্য খুবই ক্ষতিকর হতে পারে। কারণ খাবার আপনার শরীরকে শক্তি উৎপাদন করতে সাহায্য করে যা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু এই সময়ে বমি বমি ভাব খুব সাধারণ, তাই এর সমাধানে প্রচুর পানি পান করতে পারেন। এটি আপনার শরীরকে হাইড্রেটেড রাখবে এবং আপনার কিছু বমি বমি ভাব দূর করবে।

বিভিন্ন ওষুধের প্রভাব
গর্ভাবস্থায় বিভিন্ন ধরনের ওষুধ সেবন করা হয়। অনেক সময় এই ওষুধের প্রভাবে খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন, বমি বমি ভাব, মাথা ঘোরা এবং ক্ষুধা হ্রাস হতে পারে। এ কারণে গর্ভাবস্থায় জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ওষুধ এড়িয়ে চলতে বলেন চিকিৎসকরা।

বমি বমি ভাব
গর্ভাবস্থায় মহিলাদের বমি বমি ভাব একটি সুপরিচিত সমস্যা। প্রত্যেকেরই এই সমস্যা আছে। আর এটিও ক্ষুধা কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ। যেসব মহিলারা গর্ভাবস্থায় দীর্ঘমেয়াদী ফোলাভাব থাকে তাদের ক্ষুধা কমে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.