গর্ভাবস্থায় মহিলাদের ডায়াবেটিস যা একেবারেই উপেক্ষা করা উচিত নয়

গর্ভাবস্থায় মহিলাদের ডায়াবেটিস যা একেবারেই উপেক্ষা করা উচিত নয়

গর্ভাবস্থায় মহিলাদের ডায়াবেটিস যা একেবারেই উপেক্ষা করা উচিত নয়

ডায়াবেটিস সহ মহিলাদের মধ্যে গর্ভাবস্থা সমস্যা-
ডায়াবেটিস মহিলাদের গর্ভাবস্থায় অনেক নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। টাইপ 1 বা টাইপ 2 ডায়াবেটিস সহ মহিলারা গর্ভাবস্থার সময় এবং পরে বিভিন্ন জটিলতা বা স্বাস্থ্য ঝুঁকি অনুভব করতে পারে।

তাই ডায়াবেটিস আক্রান্ত নারীদের সন্তান প্রসবের আগে প্রস্তুত হওয়া প্রয়োজন যাতে ডায়াবেটিস সংক্রান্ত জটিলতা না হয়।

গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিসের সাথে যুক্ত দুটি সাধারণ ধরনের জটিলতা রয়েছে। এক- যাদের ইতিমধ্যেই ডায়াবেটিস আছে (টাইপ-১ বা টাইপ 2) এবং দুই- যাদের গর্ভকালীন ডায়াবেটিস (গর্ভকালীন ডায়াবেটিস) হয়েছে।

লক্ষণ:

গর্ভাবস্থার আগে টাইপ 1 বা টাইপ 2 ডায়াবেটিস আছে এমন মহিলাদের গর্ভাবস্থায় বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে।

শিশুর আকার তুলনামূলকভাবে বড়, তাই মহিলারা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি প্রসব বেদনা অনুভব করতে পারেন।

গর্ভবতী মহিলাদের চোখে (ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি) এবং কিডনিতে (ডায়াবেটিক নেফ্রোপ্যাথি) জটিলতা দেখা দিতে পারে।

টাইপ 1 ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ডায়াবেটিক কেটোঅ্যাসিডোসিস হতে পারে, যা রক্তে ক্ষতিকারক রাসায়নিক কিটোন তৈরি করতে পারে।

এই ধরনের রোগ গর্ভাবস্থায় বিকশিত হতে পারে বা এই রোগগুলি উপস্থিত থাকলে গর্ভাবস্থায় এর তীব্রতা বাড়তে পারে।

কীভাবে একটি শিশুর ক্ষতি হতে পারে:
সন্তান গর্ভে থাকাকালীন মায়ের ডায়াবেটিস হলে নানাভাবে সন্তানের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

জন্মের পরপরই শিশুর স্বাস্থ্য সমস্যা (হার্ট ও শ্বাসকষ্ট) হতে পারে।
ভবিষ্যতে, শিশুর অতিরিক্ত ওজন বা ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

জন্মের পর স্নায়ুতন্ত্রের সমস্যা এবং হার্টের সমস্যা বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য করণীয়:

টাইপ-১ বা টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিকে গর্ভধারণের অন্তত তিন মাস আগে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিতে হবে।

গর্ভাবস্থার পরিকল্পনা করার আগে, ডায়াবেটিস আক্রান্ত মহিলাকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আছে।

সাধারণ পরিস্থিতিতে ডায়াবেটিসের জন্য গৃহীত ওষুধ, গর্ভাবস্থায় নেওয়া ওষুধের মাত্রা ও ধরন ভিন্ন হয়, তাই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়ম মেনে চলতে হবে।

গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করা খুবই জরুরি। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত মহিলাদের গর্ভধারণের চেষ্টা করার সময় থেকে, গর্ভাবস্থার পরে, ডাক্তারের পরামর্শে ওষুধ সেবন করা উচিত। এতে শিশুর জন্মের সময় কোনো জটিলতা তৈরি হয় না।

By Taher

আসসালামু-আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি-ওয়াবারাকাতুহু ।আমি মোঃ আবু তাহের ইসলাম (আমান)। আমি গয়াবাড়ি স্কুল এন্ড কলেজ পড়াশোনা করি । আমি এসএসসি পরীক্ষার্থী 2022 সাল । আমার সাবজেক্ট একাউন্টিং। আমি ভবিষ্যতে যেকোনো একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে আমার জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী । আমার পুরো জীবনটা হচ্ছে, একটা সরল অংকের মত । যতই দিন যাচ্ছে ততই আমি সমাধানের দিকে যাচ্ছি ইনশাআল্লাহ......নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই https://dailyinfo71.com/ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি। ধন্যবাদ সবাইকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.