চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

চুল পড়া একটি সাধারণ সমস্যা। তবে অতিরিক্ত চুল থাকলে টাক পড়ার আশঙ্কা থাকে। মাথার চুল পড়তে থাকলে মনে হয় সঙ্গত কারণেই অনেক দুশ্চিন্তা আছে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ছোট ছোট পরিবর্তন চুল পড়া সমস্যার সমাধান হতে পারে।

যদি একদিনে 100টি পর্যন্ত চুল গজায়, তবে এটি স্বাভাবিক হিসাবে বিবেচিত হয়। কিন্তু চুলের বৃদ্ধির পরিমাণ যদি এর চেয়ে বেশি হয়, তাহলে এটি সমস্যার কারণ হতে পারে। যদি তাই হয়, খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। এক্ষেত্রে দৈনন্দিন জীবনে কিছু সহজ পদক্ষেপ নিতে হবে।

বিভিন্ন উপায়ে চুল পড়া কমানো যায়:

কন্ডিশনার
একটি ভাল মানের কন্ডিশনার চুলের ফলিকলগুলিকে শক্তিশালী করতে বিস্ময়কর কাজ করতে পারে। এতে রয়েছে অ্যামিনো অ্যাসিড, যা ক্ষতিগ্রস্ত চুল মেরামত ও মসৃণ রাখতে ভালো কাজ করে।

শ্যাম্পু
কোন শ্যাম্পু চুলকে মানিয়ে নেয় এবং কোন শ্যাম্পু চুলের জন্য সবচেয়ে ভালো কাজ করে তা বোঝা একজন হেয়ারড্রেসারের প্রধান কাজ। সব শ্যাম্পুই সবার মাথার ত্বকে মানানসই নয়। সুতরাং আপনাকে বুঝতে হবে কোনটি ব্যবহার করে মাথার ত্বককে মানিয়ে নিচ্ছে। এছাড়াও, নিশ্চিত করুন যে শ্যাম্পুতে খুব বেশি সালফেট, প্যারাবেন্স এবং সিলিকন নেই। এগুলো চুল ভাঙার কারণ হিসেবে কাজ করে।

ব্যায়াম ও ডায়েট
মাথার ত্বকে কী ভাল চুলের পণ্য ব্যবহার করা হচ্ছে, তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ একটি খাদ্য এবং ব্যায়াম অনুসরণ করা। কিছু ব্যায়াম করে এবং আপনার প্রতিদিনের খাবারে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং আয়রন অন্তর্ভুক্ত করে চুল পড়া কমানো যেতে পারে।

রাসায়নিকের ব্যবহার কমানো

চুল যতটা সম্ভব কম রাসায়নিক দিয়ে চিকিত্সা করা উচিত। স্ট্রেইটিং, পারমিং, কালারিং এর মতো কাজ করার সময় চুলে অনেক রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। আর এগুলো চুলের জন্য অনেক বেশি ক্ষতিকর। এছাড়া ড্রায়ার এবং কার্লিং রড ব্যবহারে চুলের অনেক ক্ষতি হতে পারে। চুলের যত্নে তাদের ব্যবহার এড়ানো উচিত, কারণ তারা বরং বেশি ক্ষতিকারক।

নিয়মিত ছাটাই

যদি চুলের নিচের অংশে একটি ভাঙা টিপ থাকে তবে এটি চুলের বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। অতএব, প্রতি ছয় থেকে আট সপ্তাহে একবার চুলের প্রান্তগুলি ছাঁটাই করা প্রয়োজন। এটি চুল বাড়াতে পারে এবং চুল পড়া কমাতে পারে।

তেল দেওয়া
মাথার ত্বকে নিয়মিত তেল দেওয়ার ফলে রক্ত ​​সঞ্চালন উন্নত হয় এবং চুলের গোড়া পুষ্ট হয়। মাথার ত্বকে উপযুক্ত তেল দিয়ে সপ্তাহে অন্তত একবার চুলের ফলিকল ম্যাসাজ করুন। তেল দেওয়ার পর তা অন্তত দুই ঘণ্টা মাথায় রাখতে হবে এবং তারপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

By Taher

আসসালামু-আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি-ওয়াবারাকাতুহু ।আমি মোঃ আবু তাহের ইসলাম (আমান)। আমি গয়াবাড়ি স্কুল এন্ড কলেজ পড়াশোনা করি । আমি এসএসসি পরীক্ষার্থী 2022 সাল । আমার সাবজেক্ট একাউন্টিং। আমি ভবিষ্যতে যেকোনো একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে আমার জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী । আমার পুরো জীবনটা হচ্ছে, একটা সরল অংকের মত । যতই দিন যাচ্ছে ততই আমি সমাধানের দিকে যাচ্ছি ইনশাআল্লাহ......নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই https://dailyinfo71.com/ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি। ধন্যবাদ সবাইকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.