জাতীয় পতাকা দিবস? এবং পতাকা দিবস কেন পালন করা হয়? সম্পূর্ণ ইতিহাস 2022
জাতীয় পতাকা দিবস?  এবং পতাকা দিবস কেন পালন করা হয়? সম্পূর্ণ ইতিহাস 2022
আজ ঐতিহাসিক ‘জাতীয় পতাকা’ দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে পূর্ব পাকিস্তানের মাটিতে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করা হয়। আশাকরি আপনারা ইতিমধ্যেই বুঝতে পেরেছেন আজকের আলোচনার বিষয় কি। আজ জাতীয় পতাকা দিবস, কখন এবং কীভাবে পালিত হয়। এবং আমাকে এর পুরো ইতিহাস সম্পর্কে বলতে দিন।
আপনি যদি এই সমস্ত কিছুর বিস্তারিত জানতে আমাদের ওয়েবসাইটে এসে থাকেন তবে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আমি আশা করি আমি আপনার বিস্তারিত তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে পারি। জাতীয় পতাকা দিবস সম্পর্কে বিস্তারিত জ্ঞান পেতে আপনাকে পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। ফলস্বরূপ, আপনি এই সম্পর্কে সমস্ত বিবরণ বুঝতে পারবেন।
তাই বাঙালিদের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পোস্ট। প্রথমেই বলি জাতীয় পতাকা দিবস কবে। 23 মার্চ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনে প্রথম জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। তাই এই দিনটিকে জাতীয় পতাকা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। আর তখন থেকেই এই দিনটি আগ্রহ ও আনন্দের সাথে পালিত হয়ে আসছে।

জাতীয় পতাকা দিবস কেন পালিত হয়?

এখান থেকে জানতে পারবেন কেন জাতীয় পতাকা দিবস পালন করা হয়। এ সম্পর্কে অনেকেরই ভুল ধারণা রয়েছে এবং অনেকে এই বিষয়ে বিস্তারিত অনুসন্ধান করেন। তাই আমরা এখানে ব্যাখ্যা করব কেন এই দিনটি পালন করা হয়। পতাকা শুধু কাপড়ের টুকরো নয়। এই পতাকা পেতে হাজারো প্রাণ হারিয়েছে। দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধের ফলে স্বাধীনতার পাশাপাশি এই পতাকাও অর্জিত হয়েছে। তার মানে পতাকা খুব একটা সহজ বিষয় নয়।
জাতীয় পতাকার মাধ্যমে একটি দেশ বিশ্বে শান্তি, সমৃদ্ধি ও স্বীকৃতির প্রতীক হয়ে ওঠে। তাই আমাদের সকলের উচিত জাতীয় পতাকা দিবস উদ্দীপনা ও আনন্দের সাথে উদযাপন করা। জাতীয় পতাকার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা আমাদের সকলের কর্তব্য। প্রিয় পতাকা দিবস এই দিনটিকে ছুটি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ এদিন স্কুল-কলেজ থেকে শুরু করে অফিস-আদালত বন্ধ থাকবে।

জাতীয় পতাকা দিবসের ইতিহাস

যারা জাতীয় পতাকা দিবসের ইতিহাসের জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করেছেন তারা এখান থেকে এর ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারবেন। আমি মনে করি বাংলাদেশের সকল মানুষের এই ইতিহাস সম্পর্কে জানা দরকার। তাই যারা আমাদের ওয়েবসাইটে আসেন তারা অবশ্যই এর ইতিহাস সম্পর্কে জানেন।
বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা দিবসের ইতিহাস অনুসারে, 1971 সালে দেশের প্রথম স্বাধীন পতাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। পতাকাটি গৌরবময় ইতিহাস, সংগ্রাম এবং বাংলাদেশের জনগণ যে সমস্ত কিছুর জন্য লড়াই করেছিল তারও প্রতীক। 1960 সালের 8 জুন রাতে সবুজ পটভূমিতে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি লাল বৃত্ত আনা হয়, যা এখন তিতুমীর হল নামে পরিচিত।
তবে ছাত্রনেতা শিবনারায়ণ দাসই সবচেয়ে শৈল্পিক উপায়ে পতাকা চূড়ান্ত করেছিলেন। তাই স্বাধীনতার পর ১৯৭১ সালের ২৬শে মার্চ প্রথম পতাকা উত্তোলন করা হয়, যা ছিল বাংলাদেশের মানুষের জন্য অত্যন্ত আনন্দের উপলক্ষ।
আমি আপনাকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করার চেষ্টা করেছি। আশা করি পোস্টটি ভালো লেগেছে। বাংলাদেশের ইতিহাস নিয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের পোস্ট রয়েছে। আপনি চাইলে সেগুলো পড়তে পারেন। এমন অনেকেই আছেন যারা দেশ সম্পর্কে জানতে চান, দেশের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চান। আমরা তাদের জন্য বিশেষ কিছু পোস্ট দেখেছি।
আপনি চাইলে সেই সব পোস্ট দেখতে পারেন। এতদিন আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার কোন মন্তব্য থাকলে, অনুগ্রহ করে নীচের মন্তব্য বাক্সে আমাদের জানান।

By Taher

আসসালামু-আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি-ওয়াবারাকাতুহু ।আমি মোঃ আবু তাহের ইসলাম (আমান)। আমি গয়াবাড়ি স্কুল এন্ড কলেজ পড়াশোনা করি । আমি এসএসসি পরীক্ষার্থী 2022 সাল । আমার সাবজেক্ট একাউন্টিং। আমি ভবিষ্যতে যেকোনো একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে আমার জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী । আমার পুরো জীবনটা হচ্ছে, একটা সরল অংকের মত । যতই দিন যাচ্ছে ততই আমি সমাধানের দিকে যাচ্ছি ইনশাআল্লাহ......নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই https://dailyinfo71.com/ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি। ধন্যবাদ সবাইকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.