ঢাকা মিরপুর চিড়িয়াখানা-২০২১

ঢাকা মিরপুর চিড়িয়াখানা-২০২১

এটি বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা বা ঢাকা চিড়িয়াখানা বলা হোক না কেন, এটি দেশের প্রাচীনতম এবং বৃহত্তম চিড়িয়াখানা। রাজধানী ঢাকার প্রাণকেন্দ্র থেকে প্রায় ১ km কিলোমিটার দূরে মিরপুরে অবস্থিত, চিড়িয়াখানাটি বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন একটি প্রতিষ্ঠান। চিড়িয়াখানাটি ১50৫০ সালে হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে একটি পশু অভয়ারণ্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

সুনিবিড় চরঘেরায় ঢাকা চিড়িয়াখানার আয়তন প্রায় 75 হেক্টর, যার মধ্যে 13 হেক্টরের দুটি হ্রদ রয়েছে। চিড়িয়াখানা তথ্য কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে ঢাকা চিড়িয়াখানায় 191 প্রজাতির 2150 প্রাণী রয়েছে। ঢাকাচিড়িয়াখানা প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্দেশ্য হল জনসাধারণের বিনোদন, বিরল, বিপন্ন বন্য প্রাণী সংগ্রহ ও প্রজনন, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ, শিক্ষিত, গবেষণা এবং এ বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি।

বেঙ্গল টাইগার ঢাকা চিড়িয়াখানার প্রধান আকর্ষণ। দেশি ও বহিরাগত প্রাণী ছাড়াও চিড়িয়াখানায় শত শত প্রজাতির পাখি রয়েছে। হ্রদে রয়েছে আধা-প্রাকৃতিক হ্রদ, দৈত্য পেলিকান। তার পাশে প্রাকৃতিক পরিবেশে বেঙ্গল টাইগার এবং সিংহ দেখা যায়। বিভিন্ন ধরণের পাখির মধ্যে রয়েছে ফ্লেমিংগো, রঙিন তেতো, বিপন্ন কুড়া, কালো শকুন এবং শঙ্খের ঘুড়ি।

প্রবেশ পথে বানরের খাঁচা দেখা যায়। ছোট -বড় অসংখ্য বানরের বানর দেখার সময় কখন চলে গেছে তা জানা অসম্ভব। সামনে এই দৈত্য পাখি বাম দিকে পড়বে। এখানেই লম্বা পা এবং বাঁকা ঠোঁটের ফ্ল্যামিঙ্গোরা মিলিত হয়। এছাড়াও রয়েছে কানিবাক, পানকৌড়ি এবং মাসরাঙ্গার মতো পাখি।

বাংলাদেশের জাতীয় প্রাণী, রয়েল বেঙ্গল টাইগার (রাজকীয় শব্দটি ব্রিটিশদের দেওয়া হয়) এর আগে একটি ভারতীয় সিংহ রয়েছে। সিংহের খাঁচায় পেরোলেই বাঘ ও ভাল্লুকের খাঁচা। চিতার মতো দ্রুত গতিশীল প্রাণী আছে। এটি চিড়িয়াখানার মাঝামাঝি। উত্তরে উত্তর হ্রদ, তার পাশে প্রাকৃতিক পরিবেশে সুন্দরবনের বাঘ, তার পাশেই সিংহ। কৃত্রিম পুকুরে আছে হিপ্পো।

চিড়িয়াখানার দীর্ঘ উত্তর-দক্ষিণ এলাকায় ঘোড়ার আকৃতির জলের বক, জেব্রাসহ আরও কিছু প্রাণী রয়েছে। এই দেশ থেকে বিলুপ্ত নীলগাই আছে। চিড়িয়াখানায় 240 প্রজাতির প্রাণী এবং পাখি রয়েছে। দক্ষিণে দক্ষিণ হ্রদ, মাঝখানে বাবলা দ্বীপ। এর পাশেই রয়েছে কেনিয়ার শিংযুক্ত গণ্ডার।

একজন সঙ্গী হারিয়ে তিনি এখন খুব একা। বাবলা দ্বীপের উন্মাদ বাতাস তাকে একটুও দমিয়ে রাখে না। শিম্পাঞ্জিদের দেখা যায় এখানে। এই শিম্পাঞ্জি সকল নারী ও শিশুদের আকর্ষণের কেন্দ্র। এটা কঠিন গ্রিল উপর লাফ এবং আপনার সঙ্গীর মাথায় উকুন চয়ন করার সময়।

চিড়িয়াখানায় বিভিন্ন ধরনের পাখি যেমন হাঁস, লাভ বার্ড, মুনিয়া, উটপাখি, কেশ্বরী ইত্যাদি বের হওয়ার পথে সুন্দরবনের প্রাকৃতিক পরিবেশে হরিণ দেখতে পাবেন।

খোলা-বন্ধ সময়সূচী:

  • গ্রীষ্মকালীন। ….. ১ লা এপ্রিল থেকে ৩০ শে সে্প্টেম্বর। …. সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা

 

  • শীতকালীন। … ১লা অক্টোবর থেকে ৩১ শে মার্চ। …..সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৫ টা

সাপ্তাহিক বন্ধ: ঢাকা চিড়িয়াখানা প্রতি রবিবার সাপ্তাহিক বন্ধ থাকে।

দর্শনী:

  • এখানে প্রবেশ মূল্য 10 টাকা।
  • প্রবেশপথে 4 টি কাউন্টার রয়েছে।
  • এছাড়া প্রাণী যাদুঘরে প্রবেশ ফি প্রতিজন ২ টাকা, হাতি প্রমোদ আরোহন ৫ টাকা, ঘোড়া প্রমোদ আরোহন ৩ টাকা।
  • চিড়িয়াখানা কর্তৃকপক্ষ বরাবর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আবেদন করলে শিক্ষার্থী শিক্ষা সফরে ৫০% থেকে ১০০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়।
  • এতিম ও মানসিক, শারিরীক প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য ১০০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়।
  • ০ থেকে ২ বৎসরের বাচ্চাদের প্রবেশের ক্ষেত্রে টিকেট সংগ্রহ করতে হয় না।

পিকনিক স্পটঃ

উৎসব ও নিরিবিলি পিকনিক স্পট সারাদিন ব্যবহারের জন্য যথাক্রমে ২,০০০ টাকা ও ১,০০০ টাকা চার্জ দিতে হয়।

দেখার বিষয়:

  • পশুর প্রতি সদয় হোন।
  • চিড়িয়াখানার কর্মীদের সহযোগী হতে হবে।
  • আপনাকে সূর্যাস্তের আগে চিড়িয়াখানা ত্যাগ করতে হবে।
  • যে বাচ্চারা আসে তাদের নজর রাখতে হবে।
  • চিড়িয়াখানার প্রাণীদের থেকে শিশুদের নিরাপদ দূরত্বে রাখতে হবে।
  • পশুদের হাত বা কাপড় খাঁচায় বা ঘরের মধ্যে রাখতে হবে না।
  • চিড়িয়াখানার প্রাণীদের খাওয়ানোর দরকার নেই।

দর্শনার্থীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

  • পশু -পাখি পর্যবেক্ষণ ছাড়াও চিড়িয়াখানায় নিঝুম ও উৎসব নামে দুটি পিকনিক স্পট রয়েছে, শিশুদের খেলাধুলা ও বিনোদনের জন্য একটি শিশু পার্ক এবং পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা প্রার্থনা।
  • এখানে একটি কেন্দ্রীয় মসজিদও রয়েছে।

ঢাকা চিড়িয়াখানা কিভাবে যাবেন

ঢাকা শহরের যে কোন স্থানে, মিরপুর ১ নম্বর সনি সিনেমা হল গোল চত্বর থেকে উত্তরে যে রাস্তাটি যায় তা সরাসরি চিড়িয়াখানার দিকে নিয়ে যায়। আপনি সনি সিনেমা হল থেকে রিক্সা বা বাসে চিড়িয়াখানায় যেতে পারেন। ভাড়া 20/25 টাকা।

তাজমহল কোথায় অবস্থিত-তাজমহল সোনারগাঁও সকল ডিটেলস ২০২১-

তাজহাট জমিদার বাড়ির সব ডিটেলস-২০২১ (Rangpur Tajhat Jomodar Bari)

পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার কোথায় অবস্থিত,সকল তথ্য-

আরশিনগর ফিউচার পার্ক-2021

যমুনা ফিউচার পার্ক কোথায়- 

By Taher

আসসালামু-আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি-ওয়াবারাকাতুহু ।আমি মোঃ আবু তাহের ইসলাম (আমান)। আমি গয়াবাড়ি স্কুল এন্ড কলেজ পড়াশোনা করি । আমি এসএসসি পরীক্ষার্থী 2022 সাল । আমার সাবজেক্ট একাউন্টিং। আমি ভবিষ্যতে যেকোনো একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে আমার জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী । আমার পুরো জীবনটা হচ্ছে, একটা সরল অংকের মত । যতই দিন যাচ্ছে ততই আমি সমাধানের দিকে যাচ্ছি ইনশাআল্লাহ......নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই https://dailyinfo71.com/ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি। ধন্যবাদ সবাইকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.