বিমানের অ্যাপে টিকিট কাটব কিভাবে ? অনলাইনে বিমানের টিকিট কাটার নিয়ম-

রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস নিজেদের অ্যাপ প্রকাশ করেছে। এখন এর মাধ্যমে ঘরে বসে টিকিট কেনা থেকে শুরু করে ফ্লাইটের বিস্তারিত তথ্যাদি জানা যাবে।

অ্যাপটিতে রয়েছে ইন্টারঅ্যাক্টিভ ড্যাশবোর্ড, ফ্লাইট খোঁজা ও টিকিট বুক করার অপশন, বুকিংয়ের পর অর্থ পরিশোধ পদ্ধতি, বুক দেওয়া টিকিটের বিস্তারিত হালনাগাদ, অনলাইনে পেমেন্ট সুবিধা, টু-ফ্যাক্টর সুবিধার নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ইন্টারঅ্যাক্টিভ এসএমএস ও ই-মেইল নটিফিকেশন ইত্যাদি।

বিমানের অ্যাপের শুরুতে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, ই-মেইল বা ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করে নিতে হবে। তাহলেই এর সব ধরনের সুবিধা পাওয়া যাবে। লগ-ইন অবস্থায় সবশেষ সার্চের ওপরে অ্যাপের ড্যাশবোর্ডেই সেই সংক্রান্ত নানান তথ্যাদি পাবেন ব্যবহারকারীরা। এছাড়া সবশেষ হালনাগাদ তথ্যাদি, নতুন অফারের খবর ইত্যাদি পাওয়া যাবে ড্যাশবোর্ডে।

বিমানের মাধ্যমে জনপ্রিয় ভ্রমণ গন্তব্যগুলোর নিয়মিত আপডেট, বিভিন্ন অফারের তথ্যাদি ড্যাশবোর্ডে সবসময়ই হালনাগাদ হতে থাকবে। ফলে অ্যাপ ব্যবহারকারীরা পরবর্তী ভ্রমণের জায়গা নিয়ে পরিকল্পনা করতে পারবেন।

সারাবিশ্বে বিমানের ২৫টি ভ্রমণস্থলের তথ্যাদির সার্চ পদ্ধতি অ্যাপটিতে সহজ লাগবে। একইভাবে টিকিট বুকিং দেওয়ার পদ্ধতিও অনেক সহজ করা হয়েছে। কোনও স্থানে ওয়ান-ওয়ে বা আসা-যাওয়ার তথ্যাদি আগে যাওয়া একই স্থানের ক্ষেত্রে বেশ সহায়ক হবে।

পছন্দসই সময় নির্ধারণ করে টিকিট বুকিং দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে অর্থ পরিশোধ না করেও বুকিং নির্ধারণের সুযোগ যুক্ত হয়েছে অ্যাপটিতে। বুকিং দেওয়ার পর ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত টিকিট থাকবে বুকিংকারীর নামে। এরমধ্যে অর্থ পরিশোধ করলেই টিকিট কাটার পূর্ণাঙ্গ কাজটি সম্পন্ন হয়ে যাবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই।

এছাড়া অ্যাপটির ‘মাই ট্রিপ’ বিভাগ থেকে ভ্রমণকারীর নামের শেষাংশের সহায়তায় অনলাইন ট্রাভেল পোর্টালের মতো বুকিংয়ের তথ্যাদির বিস্তারিত জানা যাবে। এছাড়া এখন চাইলেই অগ্রিম রিজার্ভেশন করা, বাতিল ও রিফান্ড ব্যবস্থা, ফ্লাইট নম্বরের সহায়তায় সাতদিনের সব তথ্যাদি পাওয়া যাচ্ছে এ বিভাগ থেকে।

এসব তথ্যাদি চেক ও বুকিং করার পাশাপাশি বর্তমানে ভিসা, মাস্টার, এমেক্স, নেক্সাস, রকেট ও বিকাশের মাধ্যমে অর্থ পরিশোধের সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশি টাকার পাশাপাশি চাইলে অন্য যেকোনও মুদ্রার মাধ্যমে অর্থ পরিশোধের সুযোগ রয়েছে।

অ্যাপের মাধ্যমে সব কাজের আলাদা এসএমএস ও ই-মেইল নটিফিকেশন পাবেন ব্যবহারকারী। এর মাধ্যমে রিজার্ভ সম্পন্ন হওয়ার তথ্য, পেমেন্ট ও টিকিটের বিস্তারিত, নিবন্ধনসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদির নটিফিকেশন পাওয়া যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড ://bit.ly/(httpsQ9i2Q8i) ও আইওএস (https://apple.co/2rBaldx) দুটি সংস্করণেই পাওয়া যাচ্ছে বিমানের অ্যাপ।

এছাড়াও এভাবে আমরা খুব সহজেই ঘরে বসে অভ্যান্তরীন ও আর্ন্তজাতিক বিমানের টিকিট বুকিং করতে পারি।আপনি চাইলে https://www.biman-airlines.com ওয়েবসাইট থেকে বা অ্যাপস থেকে অথবা 24tkt.com থেকে বুকিং করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.