পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট গরু? বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট গরু?

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট গরু (1)ভারতকে পিছনে ফেলে বিশ্ব রেকর্ড করল বাংলাদেশের রানি নামে এক গরু। রানি পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট গরু।
মাত্র ২০ ইঞ্চি উচ্চতা ও ২৬ কেজি ওজনের গরুটির নাম রাণী। দেখা মিলবে সাভারের আশুলিয়ার চারিগ্রামের একটি খামারে। সাদা রঙের শান্ত প্রকৃতির খর্বাকৃতির রাণী এখন বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু।

গরুর কথা উঠলেই কার গরু কতটা বড়, কত বেশি ওজন, কত বেশি দুধ দেয়- এ সব থাকে আলোচনায়। কোরবানির ঈদের আগে পত্রিকায় দেখতে পাওয়া যায় বড় বড় গরুর খবর। সেই সব গরুর বাহারি নাম দেওয়া হয়।

গরুটির নাম রাখা হয়েছে ‘রানি’।বক্সার ভুট্টি জাতের খর্বাকার এই গরুর উচ্চতা মাত্র ২০ ইঞ্চি হলেও গরুটির দাম উঠেছে ১০ লাখ টাকার উপরে।
শখের বসে বছর খানেক নওগাঁ থেকে সাড়ে ৩ লাখ টাকায় প্রত্যন্ত প্রামের কৃষকের খামার থেকে সংগ্রহ করা হয় এই গরুটি। তারপর থেকেই রাণীর ঠিকানা সিগনেচার গ্রুপের শিকড় অ্যাগ্রো লিমিটেড নামের খামারে।

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট গরু (2)মূলত ভূটানের বক্সার ভুট্টি জাতের বামন গরু এটি। খামারে ১২টি এই জাতের গরুর মধ্যে দুই বছর বয়সী রাণী সবচেয়ে ছোট।
শিকড় এগ্রো লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান এই গরুটির মালিক। দুবছর আগে নওগাঁর একটি খামার থেকে ভুটানের বক্সার ভুট্টি জাতের গরুটি কেনা হয়। গরুটিকে দিনে দুই বেলা খাবার দিতে হয়। সাধারণ গরুর তুলনায় এটির খাবারের চাহিদাও অনেক কম।

তবে সাভারের একটি গরুর নাম আলোচনায় এসেছে ভিন্ন কারণে। সবচেয়ে দামি কিংবা ওজনের জন্য নয়, এই গরুর নাম ছড়িয়েছে সবচেয়ে ছোট হওয়ার কারণে। নাম দেওয়া হয়েছে রানি। সাভারের আশুলিয়ার একটি খামারে পালন করা হচ্ছে রানিকে।

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুর রেকর্ড ছিল ভারতের কেরেলা রাজ্যের ৪ বছর বয়সী লাল রঙের মানিকিয়াম নামের এক গরুর। তবে সেটাকে পেছনে ফেলে দিয়েছে আশুলিয়ার চারিগ্রামের রানি। মাত্র ২০ ইঞ্চি উচ্চতার ২ বছর বয়সী ‘বক্সার ভূট্টি’ জাতের এই গরুটির ওজন মাত্র ২৬ কেজি।

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট গরু (3)

””গরুটির মালিক জানান, গত ২ জুলাই শুক্রবার গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা আবেদন করেছি। এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট আকারের গরু। আবেদনের পর গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ এর জবাবও দিয়েছে।
গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের নিজস্ব কিছু প্রক্রিয়া রয়েছে। সেগুলো সম্পন্ন করে আগামী ৯০ দিনের মধ্যে পরবর্তী কার্যক্রমগুলো শেষ করে সিদ্ধান্ত জানাবে তারা।”’

সাভারের আশুলিয়ার চারিগ্রাম এলাকায় পাওয়া ছোট আকৃতির গরু ‘রানি’ ভারতের ‘মানিকিয়াম’-এর চেয়েও কম ওজন ও উচ্চতার।
পশু চিকিৎসক ডা. আতিকুজ্জামান জানান, ইতোমধ্যে খামারের পক্ষ থেকে গরুটির ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে গরুটি সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে। এটার আর বাড়ার সম্ভাবনা নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.